কাটাকাটি ২২

অনভ্যাসে বিদ্যা হ্রাস। অনেকদিন কিছু লিখি না তাই লিখতে বসে কী লিখব আর কীভাবেই বা লিখব এটা নিয়ে অনেকক্ষণ চিন্তা করতে হল। এত চিন্তা করেও লিখবার জন্য কঠিন কঠিন কোন বিষয় খুজে পেলাম না। এটা অবশ্য আমার পুরাতন একটা সমস্যা। স্কুলে থাকতে স্যাররা বলত রচনা লিখবার সময় (বিশেষ করে ইংরেজী রচনা) যেন পারলে ভারী ভারী শব্দ ব্যবহার করি। ছেলেপেলেরা খুজে খুজে বিভিন্ন শব্দের কঠিন কঠিন প্রতিশব্দ বের করত শুধু এই উদ্দ্যেশে। একেতো অলস মানুষ তাই কঠিন প্রতিশব্দ শিখবার ইচ্ছে নেই আর সহজ কথা কেন কঠিন করে বলতে হবে এটাও বুঝি না ঠিক মত তাই এই ব্যাপার ব্যর্থ সব সময়। যাই হোক আজকেও কথা হবে সব সহজ সহজ বিষয়ে বিস্তারিত পড়ুন

কাটাকাটি ১৬

০।
একটা লেখা লিখতে গেলে বিষয় লাগে আবার বিষয় খুজতে খুজতে অনেকদিন লেখা হয় নি তাই আজকে ধর তক্তা মার পেরেক হোক, লিখতে লিখতে যা মাথায় আসে সে বিষয়েই লেখা হোক। বিস্তারিত পড়ুন

বইমেলার গল্প- ঘ


হরতাল খারাপ জিনিস তবে এর একটা ভাল দিকও আছে। হরতাল থাকলে সকালবেলা ক্লাসে দৌড়ানোর ভয় থাকে না, দুই মিনিট দেরি করে আসলে স্যারের ক্লাস থেকে বের করে দেওয়ারো ভয় থাকে না তাই ইচ্ছে মত ঘুমান যায়। আজকে সারাদিন এইরকম ঘুমটুম দিয়ে যখন মেলার উদ্দ্যেশে এগার নাম্বার বাসে রওনা দিলাম তখন প্রায় সন্ধ্যা। রাস্তায় হাটতে হাটতে দেখি গাড়িঘোড়া খুব কম, বলা যায় ঢাকার রাস্তায় অন্য সন্ধ্যার তুলনায় আজকে প্রায় গাড়ি নেই বললেই চলে। এইসব দেখে বুঝলাম আজকে মেলায় লোক কম হবে কিন্তু টিএসসির সামনে এসে দেখি ঘটনা উলটা। বিশাল এক লম্বা লাইন। বিস্তারিত পড়ুন

বইমেলার গল্প- গ


আজকে মেলার প্রথম বৃহস্পতিবার। সাধারণত বই মেলাতে সবচেয়ে বেশি ভীড় হয় বৃহস্পতি, শুক্র আর শনিবার। সেই হিসেবে এইবারের মেলায় আজকে ছিল ভীড় শুরু হওয়ার জন্য প্রথমদিন। মেলা শুরুর সপ্তাহ বলে দারুণ ভীড় না হলেও খুব একটা খারাপ ছিল না লোকসংখ্যা। আজকে যেতে যেতে একটু দেরি হয়ে গেল, প্রায় সোয়া সাতটা। শাহবাগ থেকে হেটে হেটে মেলায় যাওয়ার পথে অনেককেই দেখলাম মেলা থেকে ফিরে যাচ্ছে। অনেকে দলবেধে, অনেকে জোড়ায় জোড়ায় আবার অনেকে শুধুই একা। কার হাতে বই আছে আবার কার হাত খালি আবার কার হাতে মেলার বাইরে বিক্রি হওয়া টুকটাক জিনিস। বিস্তারিত পড়ুন

আবারো এসে গেল বিশ্বকাপ

বিশ্বকাপ আবারো এসে গেল। আবারো সেই ব্রাজিল আর্জেন্টিনা তর্ক, রাত জেগে খেলা দেখার উত্তেজনা, খেলার পরের দিন খেলা নিয়ে বিতর্ক- আবার শুরু হয়ে গেল সব। বিশ্বকাপের এই মৌসুমটা দারুণ লাগে। সম্ভবত খেলার মাঠে এই খেলাটাই বেশী খেলেছি বলে। তাই অপেক্ষায় আজকে সন্ধ্যায় বিশ্বকাপের পর্দা উঠার।

পিছন ফিরে তাকালে সবচেয়ে পুরাতন বিশ্বকাপের স্মৃতি ভেসে আসে ১৯৯৪। বিস্তারিত পড়ুন

কাটাকাটি

এই ব্লগটা কেন খুলেছিলাম? সম্ভবত বিভিন্ন ব্লগে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা নিজের লেখা গুলো একটা নির্দিষ্ট জায়গায় হাজির করার জন্য। অবশ্য এর পরেও একটা কারণ ছিল। মাঝে মাঝে ব্যক্তিগত কিছু জিনিস নিয়ে লেখতে ইচ্ছে করে, হয়ত পুরান কালের ডায়েরী লেখার অভ্যাসের কারণে। কিন্তু মনে একটা সংশয় থেকেই যায়, আমার এই সব ব্যক্তিগত আবজাব কমিউনিটি ব্লগীঙ্গে কতটা যুক্তিসংগত। আর এইসব লেখাগুলো যখন লেখতে ইচ্ছে করে তার প্রধান উদ্দেশ্য কিন্তু নিজের জন্য লিখা, হালকা হওয়া। এইখানে অন্য কেউ পড়ল কিনা সেই ব্যাপারটা পুরাটাই গৌণ। তাই  মাঝে মাঝে নির্জনে লেখালেখির জন্য এর  থেকে উপযুক্ত জায়গা আমার কাছে ছিল না হয়ত সেই কারণেই মন পবনের নাও।

মাঝে মাঝে মনে হয় মাথার ভিতর চিন্তার অংশটাকে কয়েক ঘন্টার জন্য তালা মেরে রাখতে পারলে ভাল হত। কারণ হঠাৎ হঠাৎ  কিছু চিন্তা এমন ঝামেলা করে কি আর বলব। তাই এদের পাশে সরিয়ে রেখে কয়েক ঘন্টা চিন্তাহীন সময় দরকার আমার। হয়ত সেই কারণেই আজকের এই কাটাকাটি।

আজকে অনেকদিন পর মনে হচ্ছে একটা সিদ্ধান্ত নেওয়া দরকার। কিন্তু সেইটা নিতে গিয়েই দেখলাম ব্যাপারটা আসলে এত সহজ না। অনেক সময় দূর থেকে অনেক কিছুই খুব সহজ মনে হয় কিন্তু কাছে আসলে সে বড় বেশী শক্ত, রক সলিড। তাই ভাবছি চলুক না সব যেমন চলছিল, পরে নাহয় হবে একদিন এইসব সিদ্ধান্ত।

আমার কাল অক্ষরের নায়িকারা

০।
আপনি প্রথম কখন প্রেমে পড়েছিলেন? আমি কিন্তু পড়েছিলাম অনেক ছোট থাকতেই, এই ধরুন গিয়ে ক্লাস ফোর। বয়সটা অবশ্য তখন বেজায় ছোট কিন্তু তাতে কী। মন তো আর তাতে বসে থাকে না। শান্ত শিষ্ট আমাকে বালিকারা বরাবরই ভাল পায় না কিন্তু তাতে কী মন তো তাও পাত্তা দেয় না। তাই অনেক আগে ক্লাস ফোরে, ১৯৯৬ সালের কোন এক সকাল অথবা বিকাল বা দুপুর কিংবা রাতের বেলায় আমি প্রেমে পড়ে গেলাম। গল্প উপন্যাসে মানুষ যেমন না বুঝে প্রেমে পড়ে ঠিক সেই ভাবে হঠাৎ করে প্রেমে পড়ে গেলাম এক বালিকার। বিস্তারিত পড়ুন